প’রকীয়া প্রে’মিকের সাথে দেখা ও উপহার নিতে গণধ**র্ষণের শি’কার প্রবাসীর স্ত্রী

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় প্রে’মিকের সাথে দেখা ও উপহার নিতে গিয়ে গণধ**র্ষণের শি’কার হয়েছেন এক প্রবাসীর স্ত্রী। ধ**র্ষণের পর ওই গৃহবধূকে আ’টকে রেখে মু’ক্তিপণ দাবী করে ধ**র্ষক যুবকরা।

এ ঘ’টনায় জ’ড়িত ৭ যুবককে শুক্রবার গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ। গ্রে’ফতারকৃতরা হলেন, গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজে’লার তরগাঁও এলাকার মোস্তফা বেপারীর ছেলে রোমান বেপারী (২০), একই এলাকার মোহসিন বেপারীর ছেলে জোবায়ের বেপারী (২১),

মফিজ সরদারের ছেলে মোস্তারিন সরদার (২১), এহসান বেপারীর ছেলে সাহাবুল হোসেন সাকিব (২২), একই উপজে’লার তরগাঁও বোয়ালের টেক এলাকার মৃ’ত সফুর উদ্দিনের ছেলে মাসুম শেখ (২১), একই এলাকার শামসুল হক ভূঁইয়ার ছেলে রাকিব হোসেন (২০) ও বাদল মোড়লের ছেলে মাহফুজুল হক (২০)।

কাপাসিয়া থানার ইন্সপেক্টর (ত’দন্ত) আফজাল হোসেন জানান, গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজে’লার চরখামের এলাকার আইন উদ্দিনের ছেলে সাখাওয়াত হোসেনের স’ঙ্গে প্রায় চার মাস আগে মোবাইল ফোনে পরিচয় হয় নরসিংদী জে’লার মনোহরদী থানার বীর আহম’দপুর এলাকার এক গৃহবধূর স’ঙ্গে।

কাতার প্রবাসীর স্ত্রী ওই না’রী এক স’ন্তানের জননী। পরিচয়ের সূত্র ধরে তাদের মাঝে প্রেমের সম্প’র্ক গড়ে উঠে। গত ১৬ ডিসেম্বর ওই গৃহবধূ কাপাসিয়া উপজে’লার নবীপুর এলাকায় বাবার বাড়ি বেড়াতে আসেন।

পরদিন (বৃহস্পতিবার) মোবাইল ফোন উপহার দেওয়া ও প্রথমবারের মতো সাক্ষাতের কথা বলে তাকে বিকেলে বাড়ি থেকে ডেকে পাশের নির্জনস্থান নর্দারটেকের (বিলের মাঝে উঁচু জায়গা) কড়ই গাছ তলায় নিয়ে ধ**র্ষণ করে সাখাওয়াত। বি’ষয়টি সাখাওয়াতের অন্য বন্ধুরা দেখে ফে’লে।

তারা ঘ’টনাস্থলে উপস্থিত হলে ধ**র্ষণের শি’কার ওই না’রী দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। এসময় যুবকরা তাকে আ’টক করে পালাক্রমে আবারো ধ**র্ষণ করে।

রাত প্রায় আটটা পর্যন্ত গণধ**র্ষণের এ ঘ’টনা ঘটে। পরে যুবকরা গণধ**র্ষণের শি’কার ওই গৃহবধূকে আ’টকে রেখে তার মায়ের কাছে ৫০ হাজার টাকা মু’ক্তিপণ দাবি করে হ’ত্যার হু’মকি দেয়।

তারা মু’ক্তিপণের টাকা পরিশোধের জন্য একটি বিকাশ নম্বরও দেয়। কাপাসিয়া থানার ওসি আলম চাঁদ জানান, বি’ষয়টি পু’লিশকে অবহিত করে থানায় অভিযোগ দা’য়ের করেন ভি’কটিমের মা।

পু’লিশ অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বিকাশ নম্বরটি ট্র্যাকিং করে অবস্থান নিশ্চিত করে। পরে রাতেই অ’ভিযান চা’লিয়ে পু’লিশ ঘ’টনাস্থল থেকে ভি’কটিমকে উ’দ্ধার ও ধ**র্ষক সাহাবুলকে হোসেনকে আ’টক করে।

পরে আ’টককৃতের ত’থ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার অপর ৬ জনকে বিভিন্নস্থানে অ’ভিযান চা’লিয়ে গ্রে’ফতার করা হয়।

তবে সাখাওয়াতকে গ্রে’ফতার করতে পারেনি পু’লিশ। শুক্রবার বিকেলে গ্রে’ফতারকৃতদের আ’দালতের মাধ্যমে কা’রাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। তারা ধ**র্ষণের স’ঙ্গে জ’ড়িত থাকার কথা পু’লিশের কাছে স্বীকার করেছে।

About tanvir

Check Also

বাংলাদেশের প্রথম তৃতীয় লি*ঙ্গের মাদরাসায় নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু

শিক্ষার্থীদের উচ্ছ্বাস ও আ’নন্দমুখর পরিবেশে বাংলাদেশের প্রথম তৃতীয় লি*ঙ্গের মাদারাসায় নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু হয়েছে। গতকাল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *