ব’য়স স্বল্পতায় ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হতে পারছে না অগণিত শিক্ষার্থী

ব’য়স ১১ বছরের বেশি (১১+) হয়নি তাই স’ন্তানকে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদনই করতে পারছেন না। দুশ্চিন্তাগ্রস্থ অভিভাবকরা ছুটছেন শিক্ষা অফিস,

জে’লা প্রশাসকের কার্যালয়সহ বিভিন্ন দপ্তরে। এ ব’য়স স্বল্পতার কারণে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির সুযোগ বি ত হতে যাচ্ছে গোপালগঞ্জের প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করা অগণিত শিক্ষার্থী।

জে’লা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ শিক্ষাবর্ষে গোপালগঞ্জ জে’লায় পঞ্চম শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছিল প্রায় ১৯ হাজার শিক্ষার্থী।

ক’রোনা পরিস্থিতির কারণে এবছর সব শিক্ষার্থীকেই পরবর্তী শ্রেণিতে উন্নীত বলে বিবেচনা করা হয়েছে এবং তাদেরকে প্রত্যয়নপত্র প্রদান করা হয়েছে।

জে’লা শহরের এস এম মডেল স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুরাইয়া খানম জানিয়েছেন, এবছর তার প্রতিষ্ঠান থেকে ১’শ ৯৯ শিক্ষার্থী পঞ্চম শ্রেণি উত্তীর্ণ হয়েছে।

এদের অধিকাংশেরই ব’য়স ১১ বছরের বেশি না হওয়ার কারণে অনলাইন আবেদন গৃহীত হয়নি। ফলে অনেক শিক্ষার্থীর পড়াশুনায় ধারাবাহিকতা ব্যাহত হতে পারে।

শহরের বীণাপানি স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তর গোপালগঞ্জ স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিম গোপালগঞ্জ স’রকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মালেকা একাডেমী ও অনির্বাণ স্কুলসহ জে’লার বিভিন্ন প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে খবর নিয়ে জানা গেছে, পঞ্চম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের অধিকাংশই একই সমস্যায় পড়েছে।

জানা যায়, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) দেশের সকল স’রকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অনলাইন ও এসএমএস’র মাধ্যমে ভর্তির আবেদন ও ফি প্রদান সংক্রান্ত নিয়মাবলী প্রকাশ করে। সে অনুযায়ী ১৫ ডিসেম্বর থেকে অনলাইনে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুরু হয়।

কিন্তু সে আবেদনে ন্যূনতম ব’য়সসীমা ১১+ নির্ধারিত থাকায় ব’য়স স্বল্পতার কারণে অধিকাংশ শিক্ষার্থীরই আবেদন গৃহীত হয়নি। এদিকে ভর্তির সময়সীমা নির্ধারিত রয়েছে ২৭ ডিসেম্বর বিকেল ৫টা অবধি। ৩০ ডিসেম্বর অনলাইন লটারীর মাধ্যমে জানা যাবে কে কোন্্ স্কুলে ভর্তি হতে পারবে।

তাই এ অবস্থায় শুধু অভিভাবকগণই নয়; বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষকরাও রয়েছেন দুশ্চিন্তায়। এভাবে ব’য়স-স্বল্পতার কারণে ভর্তির সুযোগ-বি ত হয়ে একটি বছর বসে থেকে এসব শি’শু-শিক্ষার্থীরা তাদের পড়াশুনার ধারাবাহিকতা কতটুকু ধরে রাখতে পারবে, তা নিয়ে তারা নানা সংশয়ে পড়েছেন।

গোপালগঞ্জ জে’লা শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রা’প্ত) খায়রুল আনাম মোঃ আফতাবুর রহমান হেলালী জানান, জাতীয় শিক্ষানীতি- ২০১০ (সংশোধিত ২০১৯) অনুযায়ী প্রথম শ্রেণিতে ভর্তির ন্যূনতম ব’য়স হতে হবে ৬ বছর বেশি এবং সে অনুযায়ী ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হতে ন্যূনতম ১১ বছর ১দিন ব’য়স হতে হবে।

ব’য়স-স্বল্পতার কারণে অনেকে আবেদনের সুযোগ পাচ্ছে না জেনে তিনি সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতণ কর্তৃপক্ষের স’ঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। কিন্তু স’রকারি পরিপত্রের কোন ব্যত্যয় ঘটানোর সুযোগ নেই বলে তারা জানিয়েছেন।

About tanvir

Check Also

স্বা’মী স্ত্রী’ পবিত্র মি’লনের মা’ধ্যমে সু’খ লাভ করে। ইস’লামে স্বা’মী স্ত্রী’র মি’লনকে বেহেশতের সু’খের সাথে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *