Breaking News

মা’মলা দিয়ে একটি পক্ষ আমাকে ঘায়েল করতে চায়: মামুনুল হক

গভীর ষ’ড়যন্ত্র ও চ’ক্রান্তের অংশ হিসেবে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সাবেক আমির আল্লামা শাহ আহম’দ শফীর মৃ’ত্যু নিয়ে হ’ত্যা মা’মলা হয়েছে’ বলে দাবি করেছেন সংগঠনটির যুগ্ম-মহাস’চিব মাওলানা মুহাম্ম’দ মামুনুল হক।

এ ঘ’টনার নিজের সম্পৃক্ততা অস্বীকার করে পাল্টা আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁ’শিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৭) রাতে মা’মলার বি’ষয়ে জানতে চাওয়া হলে বার্তা২৪.কমকে তিনি বলেন, ‘হ’ত্যা মা’মলার বি’ষয়টি জেনে আমি বিস্মিত হয়েছি।

বিভিন্ন খবরে দেখলাম, একটি হ’ত্যা মা’মলার আবেদন করা হয়েছে। সেখানে ৩৬ জনের স’ঙ্গে আমার নামও উল্লেখ করা হয়েছে।

অথচ আল্লামা আহম’দ শফীর মৃ’ত্যুর আগেকার কোনো ঘ’টনা কিংবা পরিস্থিতিতে আমি তার কাছাকাছি ছিলাম না।

তার পরও তারা কেন আমার নাম জড়ালো, তা বোধগম্য নয়। মা’মলায় আমার নাম অন্তর্ভুক্ত করার মাধ্যমে তাদের উদ্দেশ্য এখন অনেকটাই স্পষ্ট। আসলে তারা আমাদের ঘায়েল করতে চায়।

আল্লামা শফীর মৃ’ত্যুর পরে তাকে কেন্দ্র করে, পুঁজি করে তাদের স্বার্থের এই খেলা দেশের ধর্মপ্রা’ণ মানুষ বরদাশত করবে না।’

‘আল্লামা শফীর বড় স’ন্তান তার মৃ’ত্যুকে স্বাভাবিক বলে আখ্যায়িত করেছেন। এমনকি হাটহাজারী মাদরাসা কর্তৃপক্ষ জাতির সামনে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন।

অথচ একটি চিহ্নিত স্বার্থান্বেষী মহল মৃ’ত্যুর এত দিন পর দেশ ও জাতিকে বিভ্রান্ত করার লক্ষ্যে হ’ত্যা মা’মলা দা’য়ের করেছে’ উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘মা’মলায় আমার নাম জড়ানোর মাধ্যমে তারা আমার মানহানি ঘটিয়েছে।

এ বি’ষয়ে আমি আইনজীবী, অন্যান্য দায়িত্বশীল এবং উলামায়ে কেরাম’দের স’ঙ্গে পরামর্শক্রমে তাদের বি’রুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।’

মাওলানা মামুনুল হক আরও বলেন, ‘শাইখুল ইসলাম আল্লামা আহম’দ শফী (রহ.) ইন্তেকাল করেছেন গত সেপ্টেম্বর মাসের ১৮ তারিখ। আমি আল্লামা শফী (রহ.)-এর ভক্ত ও মুরিদ।

তিনি আমাকে আধ্যাত্মিকতার লাইনে মেহনত করার অনুমতি দিয়েছেন, খেলাফত দিয়েছেন। আমি হজরতের মৃ’ত্যুতে অনেক বেশি আ’হত ও শোকাহত।’

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সকালে আল্লামা আহম’দ শফীকে পরিকল্পিতভাবে হ’ত্যার অভিযোগে মাওলানা মুহাম্ম’দ মামুনুল হকসহ ৩৬ জনকে আ’সামি করে মা’মলা দা’য়ের করা হয়।

আল্লামা শাহ আহম’দ শফীর শ্যালক মাওলানা মাইনুদ্দীন বা’দী হয়ে দা’য়ের করা এই মা’মলা পিবিআইকে ত’দন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আ’দালত।

মা’মলায় এক নম্বর আ’সামি করা হয়েছে মাওলানা নাছির উদ্দিন মুনিরকে। দুই নম্বর আসামী মাওলানা মুহাম্ম’দ মামুনুল হক। অন্যরা হলেন- মাওলানা মীর ইদ্রিস, হাবিব উল্লাহ, আহসান উল্লাহ, মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবা’দী, মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়েজী, মুফতি নুরুজ্জামান নোমানী, আব্দুল মতিন মো. শহীদুল্লাহ, মো. রিজু’য়ান আরমান, মো. নজরুল ইসলাম, হাসানুজ্জামান, মো. এনামুল হাসান ফারুকী, মীর সাজেদ, মাওলানা জাফর আহমেদ, মীর জিয়াউদ্দিন, আহম’দ, জুবাইর মাহমুদ, এইচ এম জুনায়েদ, আনোয়ার শাহ, মো. আহম’দ কামাল, মো. নাছির উদ্দিন, কামরুল ইসলাম কাসেমী, মো. হাসান, ওবায়দুল্লাহ ওবাইদ, জুবাইর, মুহাম্ম’দ, আমিনুল হক, রফিক সোহেল, মবিনুল হক, নাঈম, হাফেজ সায়েম উল্লাহ ও মাওলানা হাসান জামিল।

গত ১৮ অক্টোবর ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা’রা যান হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা আহম’দ শফী।

About tanvir

Check Also

সাঈদ খোকনের বক্তব্যের জবাবে এবার যা বললেন মেয়র তাপস

সাবেক মেয়র সাঈদ খোকন তাকে জড়িয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন তার কোনো গুরুত্ব বহন করে না …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *