Breaking News

ডিমের চেয়েও বেশি প্রোটিন রয়েছে যেসব খাবারে

প্রোটিনের কথা বললেই সবার প্রথমেই আসে ডিমের কথা। ওজন কমাতে ও শ’রীর সুস্থ রাখতে ডিমের বিকল্প নেই।

তবে এমন আরো কিছু খাবার আছে যেখানে ডিমের পরিবর্তে খাওয়া যেতে পারে। এক কথায় বলতে গেলে বেশ কিছু খাবার আছে যেগুলোতে ডিমের চেয়ে পুষ্টিগুণ বেশি।

সয়াবিন:

সয়াবিনে ফ্যাটের পরিমাণ কম। বেশি পরিমাণে রয়েছে ভিটামিন সি ও প্রোটিন। এক বাটি সিদ্ধ করা সয়াবিন থেকে ২৮ গ্রাম প্রোটিন পাওয়া সম্ভব।

ফ্যাট ফ্রি দই:

ফ্যাট ফ্রি দইয়ে ১২ থেকে ১৭.৩ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে। এতে অনেক পুষ্টিগুণ রয়েছে।

আলমন্ড:

আলমন্ড প্রোটিনের অন্যতম একটি উৎস। এক কাপের চার ভাগের এক ভাগ আলমন্ডে ৭.৫ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে।

কুমড়ার বিচি:

কুমড়া এবং কুমড়ার বিচি দুটোই শ’রীরের জন্য অনেক উপকারী। ৩০ গ্রাম কুমড়ার বিচিতে ৯ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে।

বাদাম:

বাদাম শ’রীরের জন্য কত উপকার সে কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। বাদাম আনস্যাচুরেটেড ফ্যাট, ফলিক এসিড ও ভিটামিন ই এর অন্যতম উৎস। একটি বাদামে ৭ গ্রামের মত প্রোটিন রয়েছে।

ছোলা:

এক কাপ রান্না করা ছোলায় ১২ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে। এছাড়া আয়রন,ফসফেট,ম্যাগনেসিয়াম,ক্যালসিয়াম,জিঙ্ক ও ভিটামিন কে রয়েছে ছোলায়।

পনির:

পনিরের পুষ্টি উপাদানের কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। ১০০ গ্রাম পনিরে ২৩ গ্রামের মত পুষ্টি উপাদান রয়েছে।

মটরশুটি:

মটরশুটিতে প্রোটিন ও প্রয়োজনীয় সকল অ্যামিনো এসিড রয়েছে। হাফ কাপ রান্না করা মটরশুটিতে ৯ গ্রামের মত প্রোটিন রয়েছে।

মসুর ডাল:

প্রোটিনের গুরুত্বপূর্ণ একটি উৎস হলো ডাল। এক কাপ রান্না করা মুসর ডালে ১৪ থেকে ১৬ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে।

আলমন্ড বাটার:

৫০ গ্রাম আলমন্ড বাটারে ১০ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে। পিনাট বাটারের চেয়ে আলমন্ড বাটার অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর।

About tanvir

Check Also

ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্য’বসা,ক’চি মে’য়ে আছে

যে দেশের মানুষ শতকরা ৯০ ভাগ মু’সলমান সেখানে নাকি ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্যবসা করছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *