Breaking News

৮৪০ জনকে চাকরি দেবে বাংলাদেশ সে’নাবা’হিনী

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ সে’নাবা’হিনী। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে অসা’মরিক ৬২টি পদে ৮৪০ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আ’গ্রহীরা আগামী ০৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: বাংলাদেশ সে’নাবা’হিনী

পদের বিবরণ:

চাকরির ধরন: স্থায়ী/অস্থায়ী

কাজের ধরন: অসা’মরিক

প্রার্থীর ধরন: না’রী-পুরু’ষ

বেতন: ১০ম থেকে ২০তম গ্রেড

আবেদনের নিয়ম: আ’গ্রহীরা www.army.mil.bd এর মাধ্যমে আবেদনপত্র ও নিয়োগ সম্প’র্কে জানতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১

যে কারণে দোকানের নাম ‘শেখ হাসিনা স্টোর’ রাখলেন ব্যবসায়ী

দোকানের নাম- শেখ হাসিনা স্টোর। দোকানের সাইননবোর্ডে এমন নাম লেখা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ছবিও জুড়ে দেওয়া হয়েছে সাইনবোর্ডে। সিলেট নগরের লালদিঘীর পাড় এলাকার এই দোকানটি নিয়ে মঙ্গলবার উ’ত্তেজনা তোলপাড় দেখা দেয়। উ’ত্তেজনার প্রেক্ষিতে পু’লিশ গিয়ে ওই সাইরবোর্ড খুলে দেয়।

দোকান মালিক সাইফুর হোসেন সাজ্জাদের বি’রুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়রিও (জি’ডি) করা হয়। তবে সাইফুর হোসেন বলছেন, ভালোবাসা থেকেই তিনি এমনটি করেছেন। তার ভিন্ন কোনো উদ্দেশ্য ছিলো না।

পু’লিশ সূত্রে জানা গেছে, নগরের লালদিঘীর পাড় নতুন মার্কে’টের বি ব্লকে চা-পাতার দোকান দিয়ে ব্যবসা করেন সাইফুর হোসেন সাজ্জাদ। তিনি ওরিয়ন টি-কোম্পানি লিমিটেড ও মডার্ন ফুড লিমিটেডের ডিলার।

মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) হঠাৎ করে দোকানের দ্বিতীয় তলায় ‘শেখ হাসিনা স্টোর’ নামে সাইনবোর্ড টাঙিয়ে দেন সাইফুর।

এ বি’ষয়টি নজরে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জড়ো হয়ে আপত্তি জানান। এনিয়ে উ’ত্তেজনা দেখা দেয়। পরে বন্দরবাজার ফাঁড়ি পু’লিশ গিয়ে ইউ সাইনবোর্ডটি খুলে দেয়।

দোকানের নাম শেখ হাসিনা স্টোর দেওয়া প্রস’ঙ্গে ব্যবসায়ী সাইফুর হোসেন সাজ্জাদ বুধবার বলেন, আমি শেখ হাসিনাকে পছন্দ করে। ছোটবেলা থেকেই আমি তার অনুসারী।

এই ভালোবাসা থেকেই নিজের দোকানের নাম প্রধানমন্ত্রীর নামে দিয়েছি। এর পেছনে ভিন্ন কোনো উদ্দেশ্য নেই।

তবে প্রধানমন্ত্রীর নাম ব্যববহার করে সাইনবোর্ড টানানোর পর থেকেই অনেকটা ঝামেলায় পড়েছেন বলে জানালেন সাইফুর। তিনি বলেন, অনেকেই আমাকে ভু’ল বুঝছে।

আমি আজকেও মাসুক ভাইয়ের (মহানগর আওয়ামী লীগে সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহম’দ) বাসায় গিয়ে তাকে বি’ষয়টা বুঝিয়ে এসেছি। এখন পু’লিশ ফাঁড়িতে যাচ্ছি।

তবে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, সাইফুর হোসেন সাজ্জাদের কোনো ট্রেড লাইসেন্স নেই। তিনি তার অ’বৈধ ব্যবসা চা’লানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর নাম ব্যবহার করেছেন। যদিও এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সাইফুর।

এ বি’ষয়ে বন্দরবাজার পু’লিশ ফাঁড়ির ই’নচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মুহিউদ্দিন বলেন,

স্থানীয় ব্যবসায়ী এবং আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের দেয়া খবরের ভিত্তিতে ফাঁড়ির একদল পু’লিশ ঘ’টনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে এবং সাইনবোর্ডটি খুলে নিয়ে আসে। ত’দন্ত সাপেক্ষে এ বি’ষয়ে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

এদিকে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম ও ছবি দিয়ে দোকানের সাইনবোর্ড টানানো সেই ব্যবসায়ীর বি’রুদ্ধে থানায় জি’ডি করেছেন বাংলাদেশ তাঁতী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কালাম আহমেদ। মঙ্গলবার বিকেলে সিলেট কোতোয়ালি মডেল থানায় তিনি এই জি’ডি করেন।

About tanvir

Check Also

বাংলাদেশের প্রথম তৃতীয় লি*ঙ্গের মাদরাসায় নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু

শিক্ষার্থীদের উচ্ছ্বাস ও আ’নন্দমুখর পরিবেশে বাংলাদেশের প্রথম তৃতীয় লি*ঙ্গের মাদারাসায় নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু হয়েছে। গতকাল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *