Breaking News

স্বা’মী-স্ত্রী পরিচয়ে হোটেলে দেবর-ভাবি

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারের উৎস হোটেলে স’ন্দে’হজনকভাবে অবস্থান করাকালীন দেবর ও ভাবিকে আ’টক করেছে পু’লিশ। শনিবার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে তাদের আ’টক করে দোয়ারাবাজার থানা পু’লিশ।

জানা যায়, শনিবার সকালে নিজেদেরকে স্বা’মী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে দোয়ারাবাজার উৎস হোটেলের ২য় তলার ৪নং কক্ষটি ভাড়া নেয়। কিছুক্ষণ পরেই তাদের আচার আচরণে স’ন্দে’হজনক হলে বি’ষয়টি হোটেলের অন্যান্য কর্মচারীসহ স্থানীয় লোকজন থানা পু’লিশকে খবর দেন।

খবর পেয়ে দোয়ারাবাজার থানার এসআই রাকিবুল হাছানের নেতৃত্বে অ’ভিযান চা’লিয়ে তাদেরকে আ’টক করা হয়।

দোয়ারাবাজার থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা মুহাম্ম’দ নাজির আলম দেবর-ভাবিকে আ’টকের খবর নিশ্চিত করে বলেন, আ’টককৃতদের ৫৪ ধারায় আ’দালতে পাঠানো হয়েছে।

নাচ শেখানোর কথা বলে ধর্ষণ, ৩ নৃত্যশিল্পী গ্রে’ফতার

বগুড়ায় নাচ শেখানোর কথা বলে এক কি’শোরীকে ধর্ষণ ও আরেক কি’শোরীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে তিন নৃত্যশিল্পীকে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ। গ্রে’ফতারকৃতদের মধ্যে দুই যুবক ও এক তরুণী।

শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকালে অ’ভিযান চা’লিয়ে তাদের গ্রে’ফতার করা হয়।

গ্রে’ফতারকৃতরা হলেন- শহরের উত্তর চেলোপাড়ার মোজাম্মেল হোসেনের ছেলে রাজু আহমেদ (২৭), গাবতলি উপজে’লার নিশিন্দারা আকন্দপাড়ার আনিসার রহমানের ছেলে নয়ন মিয়া শাহ (৩০) ও তাদের সহযোগী হিসেবে অ’ভিযুক্ত শহরের মালগ্রাম এলাকার গাফফার মন্ডলের মে’য়ে নিদু খাতুন নেহা (১৮)।

পু’লিশ জানায়, গ্রে’ফতার তিনজন নৃত্যশিল্পী হিসেবে পরিচিত। তাদের মধ্যে নেহা শহরের দত্তবাড়ি এলাকার বেনিকুন্ড রোডের মিনকো প্যালেসের চতুর্থ তলায় বাড়িভাড়া নিয়ে থাকেন। নেহার বাবার বাড়ি শহরের মালগ্রাম এলাকায় হওয়ায় প্রতিবেশী সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া ও পঞ্চম শ্রেণিতে দুই কি’শোরীর স’ঙ্গে তার সম্প’র্ক গড়ে ওঠে।

মালগ্রামেই নেহার বাবার বাড়িতে তাদের স’ঙ্গে অ’ভিযুক্ত দুই যুবকের পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে তারা দুই কি’শোরীকে নৃত্যশিল্পী হওয়ার সুযোগ গড়ে দেবে বলে প্রলোভন দেন।

বৃহস্পতিবার দুই কি’শোরীকে নৃত্য বি’ষয়ে আলোচনার কথা বলে নেহার ভাড়া বাসায় ডেকে নেয় অ’ভিযুক্ত দুই যুবক। কি’শোরীরা বান্ধবীর বাড়িতে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে নেহার বাসায় যায়।

সেখানে আড্ডার এক পর্যায়ে অ’ভিযুক্ত রাজু সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া কি’শোরীকে ধর্ষণ করেন এবং নয়ন পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া কি’শোরীকে শা’রীরিকভাবে নি’র্যাতন চা’লিয়ে ধর্ষণচেষ্টা করেন।

পরদিন দুই কি’শোরী সেখান থেকে ছাড়া পেয়ে বাড়িতে গেলে তাদের অভিভাবকের জেরার মুখে সব কথা বলে দেয়। এরপর ধর্ষিত ও ধর্ষণচেষ্টার শি’কার দুই কি’শোরীর পরিবারের পক্ষ থেকে শুক্রবার রাত ১২টায় মা’মলা করা হয়।

বগুড়া সদর থানার পরিদর্শক (ত’দন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর আমরা অ’ভিযুক্তদের গ্রে’ফতার করেছি। ধর্ষণের শি’কার কি’শোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। গ্রে’ফতারকৃতদের শনিবার দুপুরে আ’দালতে পাঠানো হয়েছে।

About tanvir

Check Also

বাংলাদেশের প্রথম তৃতীয় লি*ঙ্গের মাদরাসায় নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু

শিক্ষার্থীদের উচ্ছ্বাস ও আ’নন্দমুখর পরিবেশে বাংলাদেশের প্রথম তৃতীয় লি*ঙ্গের মাদারাসায় নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু হয়েছে। গতকাল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *