Breaking News

দু’ধ ও মিশ্রি একস’ঙ্গে খাওয়ার উপকারিতা

অল্প কাজ করলেই ক্লান্তি ঘিরে ধরে? কোথাও বেরোলে বাড়ি ফিরে কোনো কাজ করতে ই’চ্ছা করে না? মেজাজ নিয়ন্ত্রণ হারাচ্ছে?

একটুতেই মনে হয়, ঘুম ঘুম পাচ্ছে তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। তবে এই উপসর্গের মূ’ল কারণ আপনার শ’রীরে হিমোগ্লোবিনের অভাব অথবা পুষ্টি শোষন ক্ষ’মতা কম। পর্যা’প্ত পুষ্টি নেই শ’রীরে।

এমন সময় ঘরোয়া টোটকাই আপনার এনার্জিকে ফিরিয়ে আনতে পারে। এক গ্লাস দু’ধের স’ঙ্গে মিছরি মিশিয়ে খেয়ে নিন। এতে শ’রীরে মিলবে পুষ্টিগুণ।

সুস্থতার জন্য একদিকে দু’ধ খুবই উপকারি একটি পানীয়। যার পুষ্টিগুণ সম্প’র্কে আলাদা করে বলা কিছু নেই। এ

তে রয়েছে প্রোটিন, নিয়াসিন, ফসফরাস, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়োডিন, খনিজ পদার্থ, চর্বি, শ’ক্তি, রাইবোফ্লাভিন, জিংক, ভিটামিন এ, ডি, কে এবং ই।

আপনার যদি দু’ধে অ্যাসিড হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তাহলেও খেতে পারেন এই আয়ুর্বেদিক টোটকা। কারণ দু’ধের স’ঙ্গে মিছরি অ্যান্টাসিড এজেন্ট হিসেবে কাজ করে।

শ’রীরের বাড়তি কর্মশ’ক্তি যোগাতে দু’ধ খুবই উপকারি। প্রাচীনকাল থেকেই মিছরি অনেক গু’রুতর রো’গের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

১.হালকা গরম দু’ধের সাথে মিশরি মিশিয়ে বদহজমের সমস্যা দূর হয় এবং গ্যাস্ট্রিক ও কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর হয়।
২. ঘুমের সমস্যা খুব সহজেই দূর হবে। প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এই পানীয় খান।

৩.মেজাজ নিয়ন্ত্রণ করার পাশাপাশি মনকে শান্ত রাখতে সহায়তা করে।

৪.যারা সারাক্ষণ কম্পিউটার, ল্যাপটপ বা মোবাইলে কাজ করেন, তাদের জন্য দু’ধ-মিছরির মিশ্রণটি খুব উপকারী। চোখের উপকার করে এই মিশ্রণ।

৪.গরম দু’ধে জাফরান ও মিছরি মিশিয়ে খেলেও শ’রীরে অ্যানার্জি আসে। এ ছাড়াও শ’রীরে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ বাড়ে।

৫.শ’রীরের র’ক্ত সঞ্চালনকে আরও উন্নত করে দু’ধ-মিছরি। এতে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে।

৬.ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় এক গ্লাস গরম দু’ধ ও মিছরি পান করলে সর্দি-কাশি থেকে রেহাই মিলবে।

About tanvir

Check Also

ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্য’বসা,ক’চি মে’য়ে আছে

যে দেশের মানুষ শতকরা ৯০ ভাগ মু’সলমান সেখানে নাকি ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্যবসা করছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *