Breaking News

স্বা’মী প’রকীয়ায়, স্ত্রীর অভিযোগে ইট ঝুঁলিয়ে ঘোরালেন চেয়ারম্যান!

রাজবাড়ী জে’লার কালুখালী উপজে’লার সাওরাইল ইউনিয়নে মধ্যযুগীয় কায়দায় গ্রাম্য সালিশের সি’দ্ধান্ত অনুযায়ী এক যুবকের ‘বিশেষ অ’ঙ্গে’ ইট বেঁ’ধে মাঠের চারপাশে ঘোরানোর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘ’টনায় ওই যুবক গু’রুতর অ’সুস্থ ও র’ক্তক্ষরণ হলে তাকে পাংশা উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘ’টনায় মা’মলা দা’য়েরের পর সালিশের মাতুবর স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলীকে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ।

মা’মলা সূত্রে জানা যায়, কালুখালী উপজে’লার সাওরাইল ইউনিয়নের ওই যুবক ব্যক্তিগত জীবনে তিন স’ন্তানের জনক। স্ত্রী তার বি’রুদ্ধে প’রকীয়ার অভিযোগ এনে সাওরাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলীর কাছে বিচার চাইলে রোববার (২৪ জানুয়ারি) বিকেলে পাতুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তিনি ওই যুবকর ‘বিশেষ অ’ঙ্গে’ ইট বেঁ’ধে মাঠ প্রদক্ষিণের নির্দেশ দেন।

নির্দেশ প্রদানের স’ঙ্গে স’ঙ্গে তার ‘বিশেষ অ’ঙ্গে’ ইট বেঁ’ধে মাঠের চারপাশ ঘোরানো হলে র’ক্তক্ষণ হতে থাকে ও গু’রুতর অ’সুস্থ হয়ে পড়েন। এ সময় তাকে মা’মলা মোকাদ্দমা না করার হু’মকি দেন সালিশকারীরা। বাড়ি ফেরার পর তিনি আরও বেশি অ’সুস্থ হয়ে পড়লে তাকে পাংশা উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

কালুখালী থানার ভারপ্রা’প্ত কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমান জানান, ওই ঘ’টনায় ওই যুবকর বাবা বা’দী হয়ে কালুখালী থানায় মা’মলা দা’য়ের করেছেন। মা’মলায় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলী, ইউসুফ হোসেন,

নাজিরুল শেখ, জিরু মৃধা, রায়হান মন্ডল, চিকু ও জাকির হোসেনসহ আরও অ’জ্ঞাত ৫ থেকে ৬ জনকে আ’সামি করা হয়েছে। অ’ভিযান চা’লিয়ে সাওরাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম আলীসহ দুইজনকে গ্রে’প্তার করা হয়েছে বলেও জানান মাসুদুর রহমান।

About tanvir

Check Also

ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্য’বসা,ক’চি মে’য়ে আছে

যে দেশের মানুষ শতকরা ৯০ ভাগ মু’সলমান সেখানে নাকি ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্যবসা করছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *