Breaking News

আশরাফুল ভক্তদের জন্য চ’রম দু:সংবাদ অবসরের সময় জানিয়ে দিলেন তিনি নিজেই

একটা সময়ে জাতীয় দলের অটোমেটিক চয়েজ ছিলেন মোহাম্ম’দ আশরাফুল। কিন্তু ধারাবাহিকতার অভাবে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ে যান বাংলাদেশ দলের সাবেক এই অধিনায়ক।

টেস্ট ক্রিকে’টে সর্বকনিষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে সেঞ্চু’রির রেকর্ড গড়া ৩৬ বছর ব’য়সী এ তারকা ক্রিকেটার এখনও মুখিয়ে আছেন জাতীয় দলে খেলার জন্য। বছরের শেষ মুহূর্তে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে বিভিন্ন বি’ষয় নিয়ে কথা বলেছেন আশরাফুল। তার সাক্ষাৎকারটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

কেমন আছেন?

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: আলহাম’দুলিল্লাহ, আল্লাহ এখনও ভালো রেখেছেন। পরিবার-আত্মীয় স্বজন সবাই ভালো আছে।

বছরটা কেমন কাটল?

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: বছরটাতো ক’রোনায়ই শেষ হয়ে গেল। আল্লাহর কাছে শুকরিয়া, একটা ছেলে স’ন্তান আমাকে দিয়েছেন।

এবছর যে আশা করেছিলেন সেটা পূরণ হয়েছে কি?

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: যেভাবে বছরটা শুরু করেছিলাম, প্রত্যাশা ছিল সেটা ধারাবাহিক অব্যাহত রাখার। নিয়মিত পারফর্ম করে যাওয়া। কিন্তু সেই আশা পুরণ হইল কই! ক’রোনায় বছর শেষ।

বছরের শুরুতে বিসিএলে টানা দুই ম্যাচে ফিফটি করেছিলেন..।

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: বছরের শুরুটা আসলে ভালো হয়েছিল। খেলাটা কন্টিনিউ হলে ভালো হতো। আসলে খেলায় থাকলে ভালো লাগে।

নতুন বছরে আপনার কি লক্ষ্য?

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার খেলা শুরু হবে। তখন চেষ্টা করব নিজের সর্বোচ্চ উজার করে দিয়ে খেলার।

কিছুদিন আগে বলেছিলেন একদিনের জন্য হলেও জাতীয় দলে ফিরতে চান….।

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: খেলতে তো চাই। দেখা যাক, কি হয়! পরিকল্পনা আছে। জাতীয় দলে ঢুকতে পারলে খুশি হব। ভালোভাবে ঢুকতে চাই। ভালো খেলেই দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে চাই। তার আগে সবকিছু নরমাল হোক। ভ্যাকসিন এখনও আসেনি। ভ্যাকসিন আসলে খেলা মাঠে গড়ালে ভালো হবে।

আর কতদিন ক্রিকেট খেলতে চান?

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: আরো তিন থেকে চার বছর খেলতে চাই। ফি’টনেস আলহাম’দুলিল্লাহ ঠিক আছে। খেলাটা কন্টিনিউ করতে চাই।

ক্রিকেট থেকে অবসরের পর কি করার পরিকল্পনা আছে?

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: এখনও সেই চিন্তা করেনি। তবে ক্রিকে’টের স’ঙ্গেই থাকতে চাই।

যদি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পক্ষ থেকে জাতীয় দল বা ব’য়সভিত্তিক দলের নির্বাচক হিসেবে কাজ করা বা অন্যকোনো প্রস্তাব আসে, গ্রহণ করবেন?

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: এখনও এসব চিন্তা করিনি। ব’য়স যেহেতু আছে, এখনও খেলতে চাই। ওইসব জায়গায় যাওয়ার এখনও অনেক সময় আছে। খেলার মজাই আলাদা।খেলতেই ভালো লাগে। খেলা একবার ছেড়ে দিলে তো আর ফিরতে পারব না। কাজেই খেলা চা’লিয়ে যেতে চাই।

আপনার মে’য়ে তো বড় হয়ে যাচ্ছে, তাকে নিয়ে আপনার পরিকল্পনা কী?

মোহাম্ম’দ আশরাফুল: ছেলের ব’য়স মাত্র ছয় মাস। মে’য়েটার চার বছর চলছে। প্রথম কথা হলো ভালো মানুষ বানাতে চাই। মে’য়েটা এখন দৌড়াদৌড়ি করতে পছন্দ করে। করোনার কারণে কোথায়ও ঘুরতে নিয়ে যেতে পারছি না।

তবে ওরা যদি খেলতে চায় তাহলে সুযোগ করে দেব। খেলার জন্য জো’র করব না। আমার বড় ভাই মোশতাক আহমেদের ছেলে তানজিল আহমেদ গোড়ান ক্রিকেট একাডেমিতে খেলছে। ও আফতাবনগরে প্রাকটিস করে। ওকে এখন হেল্প করছি। দেখা যাক, আমার ছেলেমে’য়েরাও যদি খেলাধুলা পছন্দ করে তাহলে হেল্প করব।

About tanvir

Check Also

ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্য’বসা,ক’চি মে’য়ে আছে

যে দেশের মানুষ শতকরা ৯০ ভাগ মু’সলমান সেখানে নাকি ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্যবসা করছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *