Breaking News

দু’ধ বেচতে ৩০ কোটি রুপির হেলিকপ্টার কিনলেন কৃষক!

কৃষিপ্রধান দেশে কৃষকদের দুর্দশা কম কিছু নয়। কিন্তু এর মধ্যেও ব্যতিক্রম হিসেবে শিরোনামে উঠে এসেছেন ভা’রতের মহারাষ্ট্রের জনার্দন ভইর। কারণ, দু’ধ বেচতে তিনি একটি আস্ত হেলিকপ্টার কিনে ফে’লেছেন। যার দাম প্রায় ৩০ কোটি টাকা। ভা’রতজুড়ে চলা কৃষক আ’ন্দোলনের মাঝেই এক সম্পূর্ণ ভিন্ন চিত্র ফুটে উঠল মহারাষ্ট্রে। খবর সংবাদ প্রতিদিন।

হ্যাঁ, শুনতে অ’বাক লাগলেও বাস্তবে এমনটাই ঘটেছে। মহারাষ্ট্রে ভিওয়ান্ডি এলাকার বাসিন্দা জনার্দন ভইর দু’ধের ব্যবসা করেন। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে তার ব্যবসা ছড়িয়ে আছে। নিজের কাজের জন্য অনেক সময় ওই কৃষককে দেশের অন্য জায়গায় যেতে হয়। আর এ কারণেই তিনি হেলিকপ্টার কিনে নিয়েছেন। এখন থেকে নাকি হেলিকপ্টারে করেই ব্যবসা এগিয়ে নিয়ে যাবেন তিনি।

ইতিমধ্যে নিজের বাড়ির পাশে একটি হেলিপ্যাডও বানিয়ে ফে’লেছেন। পাশাপাশি, পাইলট রুম, টেকনিশিয়ান রুমও বানিয়েছেন।

এ বি’ষয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেন, “দু’ধের ব্যবসার জন্য আমাকে প্রায়ই পাঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থান ও গুজরাটের মতো একাধিক রাজ্যে সফর করতে হয়। তাই হেলিকপ্টার কিনেছি। ১৫ মা’র্চ হেলিকপ্টারটি চলে আসবে। আমা’র কাছে ২.৫ একর জমি আছে, যেখানে হেলিকপ্টারের জন্য হেলিপ্যাড ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো তৈরি করা হবে।”

জানা গেছে, প্রায় ১০০ কোটি টাকার স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি রয়েছে জনার্দন ভইরের। কৃষিকাজের পাশাপাশি দু’ধের ব্যবসা করেন তিনি। শুধু তাই নয়, ভিওয়ান্ডি এলাকায় বেশ কয়েকটি গুদামও রয়েছে তার। দেশের বেশ কয়েকটি অ’ত্যন্ত বড় মাপের বাণিজ্যিক সংস্থা সেগুলো ভাড়া নিয়ে থাকে। ফলে সেখান থেকেও মো’টা অঙ্কের আয় হয় জনার্দনের।

এজন্য নিজের এলাকায় যথেষ্ট প্রতিপত্তিও রয়েছে তার। গত রবিবার ট্রায়ালের জন্য হেলিকপ্টারটি তাদের গ্রামে এসেছিল। তখন গ্রামের পঞ্চায়েত সদস্যদের সেটিতে চা’পিয়ে বেশ কিছুক্ষণ আকাশে ঘুরিয়ে আনেন ওই কৃষক।

About tanvir

Check Also

ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্য’বসা,ক’চি মে’য়ে আছে

যে দেশের মানুষ শতকরা ৯০ ভাগ মু’সলমান সেখানে নাকি ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্যবসা করছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *