Breaking News

সিআইডির অনুসন্ধানে বেরিয়ে এলো আনুশকার মৃ’ত্যুর কারণ

বৈচিত্রের প্রলোভনে স্বাভাবিক প্রবৃত্তিতে ঢুকে পড়ছে নানা বিকৃতি। নি’ষিদ্ধ নানা যৌ*aনাচার সামগ্রী আম’দানি করে নানাভাবে বিজ্ঞাপন দিয়ে বিভিন্ন পার্টিসহ রাজধানীজুড়ে ছড়িয়ে দিচ্ছে একটি সংঘবদ্ধ চ’ক্র। এমনই এক ফরেন বডি থেকে অতিরিক্ত র’ক্তক্ষরণে মৃ’ত্যু হয় ‘ও’ লেভেলের ছাত্রী আনুশকার। সংবাদ সম্মেলনে সিআইডি জানিয়েছে, এ ধরনের সরঞ্জাম ব্যবহারে সাবধান হওয়া খুবই জরুরি।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর মালিবাগস্থ সিআইডির সদরদপ্তরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির সাইবার ক্রা’ইম কমান্ড অ্যান্ড কন্ট্রোল সেন্টারের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. কামরুল এ ত’থ্য নিশ্চিত করেন।

বিকৃত যৌ*aনাচারের ফরেন বডি কী? জানুন বিস্তারিত…

মো.কামরুল আহসান বলেন, গত ৭ জানুয়ারি রাজধানীর মাস্টারমাইন্ড স্কুলের ও লেভেলের ছাত্রী আনুশকার ধর্ষণের ফলে মৃ’ত্যু হয়। ময়নাত’দন্তে জানা যায়, বিকৃত যৌ*aনাচার ফলে অতিরিক্ত র’ক্তক্ষরণে মা’রা যায় সে। বিশেষজ্ঞদের মতামত অনুসারে, আনুশকাকে নি’র্যাতনের সময় এক ধরনের ফরেন বডি ব্যবহার করেছিল। আনুশকার মৃ’ত্যুর বি’ষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সিআইডির পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, রাজধানীতে একটি সংঘবদ্ধ চ’ক্র নি’ষিদ্ধ যৌ*aনাচারের সামগ্রী ও উদ্দীপক দ্রব্য নানা ধরনের বিজ্ঞাপন দিয়ে বিক্রি করছে। এ চ’ক্রের ৭ সদস্যকে আ’টক করেছে সিআইডি।

আনুশকার শ’রীরে ‘ফরেন বডি’র আলামত

আনুশকার মৃ’ত্যুর পর তার ম’য়নাত’দন্ত করেছিলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ। তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেছিলেন, স্বাভাবিক শা’রীরিক সম্প’র্কে এতটা ভ’য়াবহ পরিণতি হওয়ার কথা নয়। শ’রীরের নিম্না’ঙ্গে কোন ‘ফরেন বডি’ কিছু একটা ব্যবহার করা হয়েছে। এক কথায় সেখানে বিকৃত যৌ*aনাচার করা হয়েছে।

তিনি বলেছিলেন, আমি আমার পোস্টমর্টেম জীবনের অ’ভিজ্ঞতার আলোকে বলতে পারি, স্বাভাবিক শা’রীরিক সম্প’র্কে এই ইনজুরি মোটেও সম্ভব না। ওটা অন্য কিছু ছিল।

যো’নিপথ ও পায়ুপথ থেকে প্রচুর র’ক্তক্ষরণের কারণে ভু’ক্তভোগীর মৃ’ত্যু হতে পারে বলে ধারণা এই চিকিৎসকের। তিনি জানান, প্রচুর র’ক্তক্ষরণ হওয়ায় সে ‘হাইপো ভোলেমিক’ শকে মা’রা গেছে। মানুষের মাত্রাতিরিক্ত র’ক্তক্ষরণ বা দে’হ থেকে অতিরিক্ত তরল বের হয়ে গেলে হৃদপিণ্ড স্বাভাবিক কার্যক্ষ’মতা হারায়। এ কারণে হৃদযন্ত্র শ’রীরে র’ক্ত সরবরাহ করতে পারে না, মানুষ মা’রা যেতে পারে।

আনুশকার ঘ’টনায় করা মা’মলায় প্রধান আ’সামি দিহান গত ৮ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদের আ’দালতে দায় স্বীকার করে স্বেচ্ছায় স্বী’কারোক্তিমূ’লক জবানব’ন্দি দেন। ওই দিনই নি’হত ছাত্রীর ম’য়নাত’দন্ত সম্পন্ন হয়। ম’য়নাত’দন্ত শেষে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায়।

About tanvir

Check Also

ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্য’বসা,ক’চি মে’য়ে আছে

যে দেশের মানুষ শতকরা ৯০ ভাগ মু’সলমান সেখানে নাকি ভিজিটিং কার্ডের মাধ্যমে দে’হ ব্যবসা করছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *